ইমেইল মার্কেটিংটিপস এন্ড ট্রিকস

সফল ইমেইল মার্কেটিং ক্যাম্পেইন করার ৫টি টিপস

আপনি মনে হয় ইমেইল মার্কেটিং এর কিছু টিপস চাইছেন বা জানতে চাইছেন কিভাবে সফল ইমেইল মার্কেটিং ক্যাম্পেইন করতে হয়। তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য!

আপনি ভাবছেন সত্যি কী ইমেইল মার্কেটিং কাজ করে?

যেমনটা সবাই বলে থাকে তাহলে বলছি শুনুন, হ্যাঁ, ইমেইল মার্কেটিং এখনো খুব ভালো কাজ করে কিন্তু আপনাকে জানতে হবে সঠিক টিপস তবেই আপনি সফল হবেন ইমেইল মার্কেটিং এর মধ্যে।

কিছু মানুষ আছেন যারা ইমেইল মার্কটিং-এ সফলতা পাননি বা খুব কাছে গিয়ে ফিরে এসেছেন কারণ তারা সব সময় নেগেটিভ বিষয় বস্তুগুলি নজর আন্দাজ করতেন কিন্তু একটা কথা ব্যাবসা কোনো দিন শেষ হবে না তাই ইমেইল মার্কেটিং এরও কোনো শেষ নেই।

বাস্তবে, ইমেইল মার্কেটিং সব থেকে শক্তিশলী একটি মাধ্যম তুলনা মূলক ভাবে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর থেকেও আর জনপ্রিয়তা খুব বেশিই এবং ৭০% মার্কেটার রা সব থেকে এটাই আগে নজর বেশিই দেন কিভাবে ইমেইল মাকেটিং শুরু করা যায় কারণ ইমেইল মার্কেটিং যেখানে আপনাকে ২.৩% সেল জেনারেট করতে সাহায্য করে থাকে সেখানে আরো সব মাধ্যম ১% বা ১.৫% উর্ধে যেতেই পারে না।

যদি কোনো কোম্পানি তাদের ইমেইল মার্কেটিং এর জন্য $১ খরচ করে থাকে কিন্তু তার রিটার্ন বা সেল $৪০ পর্যন্ত হতে পারে বা জেনারেট করতে পারে তাহলে বুজতে পারলেন প্রত্যেক $১ থেকে $৪০ পর্যন্ত লাভ করতে পারেন ব্যবসা অধিকর্তারা। এমনকি এমন অনেকে আছে যারা শুধু মাত্র ইমেইল মার্কেটিং করে আয় করেছে হাজার হাজার টাকা

আসুন দেখে নেয়া যাক ৫ টি বেস্ট ইমেইল মার্কেটিং টিপস বর্তমানে যেগুলি ইন্টারনেট মার্কটেরসরা বা ব্যবসা অধিকর্তারা ব্যবহার করে প্রচুর সেল জেনারেট করে থাকেন আসুন চেষ্টা করুন এই টিপস গুলি অ্যাপলাই করার আপনার ইমেইল মার্কেটিং ক্যাম্পেইন এর মধ্যে।

প্রত্যেক দিন কতই ইমেইল অনেকে পাঠান কিন্তু শুধু কিছু মাত্র কিছু কোম্পানি জানেন কিভাবে তাদের অডিয়েন্স এর থেকে বেস্ট ডিল ক্রয় করানো যায় ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে তাই ইমেইল মার্কেটিং এ সব সময় দাম কোম্পটিটিভ  রাখতে চেষ্টা করুন যেখান আপনি প্রচুর সেল জেনারেট করতে পারবেন।

১. আগে আপনার অডিয়েন্স জানুন

আপনি ভাবছেন এটা আবার কেমন প্রশ্ন তাহলে শুনুন এখনো অনেক কোম্পানি আছে যারা বাল্ক ইমেইল বিক্রি করে থাকে সেখানে লাভ এটাই আপনাকে কোনো বল প্রয়োগ না করেই আপনি অনেক ফ্রেশ ইমেইল লিস্ট পাচ্ছেন কিন্তু ক্ষতি হচ্ছে আপনি জানেন না কোন রকমের অডিয়েন্স তারা তাদের ইন্টারেস্ট কি?

তাই প্রশ্ন হচ্ছে আপনার দরকার প্রথমে ভালো করে জানা কোন রকমের অডিয়েন্স তারা এখানেই শুরু একটি সফল তম ইমেইল মার্কেটিং ক্যাম্পিয়ন এর, আপনাকে জানতে হবে বাস্তবে তারা কি আপনার প্রোডাক্ট এ কোনো ইন্টারেস্ট আছে তাদের উপর রিসার্চ করতে হবে আর যদি আপনি কষ্ট করে তাদের একটা একটা করে ইমেইল কালেক্ট করেন ব্লোগ্গিং এর মাধ্যমে তাহলে আপনি ভালো করে জানবেন তাদের সমস্ত তথ্য।

আপনি চাইবেন না কোনো অচেনা ব্যাক্তিকে আপনার প্রোডাক্ট প্রমোশন ইমেইল পাঠাতে বরংবার তাই যাচাই করুন বিভিন্ন হেডিং দিয়ে আপনার ইমেইল পাঠান, ইমেইল মার্কেটিং এ রেভেলেন্সি খুব বেশিই করে নজর দিন কারণ ইমেইল মার্কেটিং যদি আপনি আপনার নিশের প্রোডাক্ট সেন্ড করতে পারেন সেগুলি সম্বভনা থাকে ১৮ গুন্ বেশিই বিক্রি হবার।

কিন্তু কিভাবে জানবেন আপনার পাঠনে ইমেইল খোলা হচ্ছে না ইগনোর করা হচ্ছে এটার মোক্ষম জবাব ইমেইল মার্কটিগ এর প্রত্যেকটি ইমেইল ভাগ করুন তাদের বয়স, স্থান, ইন্টারেস্ট, পেশা, শিক্ষগত যোগত্যা ইত্যাদি।

যদি উদাহরণ সরূপ বলি, তারা কোন রকমের ল্যাপটপ বা কম্পিউটার ব্যাবহার করছেন তাদের থেকে জানুন আগে এবং সেই  অনুযায়ী তাদের ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের পার্টস বা ইকুইপমেন্ট প্রমোশনাল ইমেইল এর মাধ্যমে পাঠাতে থাকুন।

২. দৈনিক ইমেইল পাঠাতে থাকুন

দৈনিক ইমেইল পাঠনো একপ্রকার যাকে আমরা বলে থাকি ইমেইল স্প্যামিং যখন, আপনি সততার সঙ্গে একটি ইমেইল মার্কেটিং ক্যাম্পিয়ন শুরু করতে চাইছেন তখন আপনি নিশ্চিত চাইবেন না ইমেইল স্প্যামিং করতে তাহলে কিভাবে দৈনিক ইমেইল পাঠাবেন।

এখানে সমাধান হচ্ছে যেসব ইউসার বা অডিয়েন্স স্বইচ্ছায় আপনার ইমেইল লিস্টে নথিভুক্ত আছেন তাদের যাচাই করুন এবং তাদের দৈনিক ইমেইল পাঠাতে থাকুন, কারণ তারা আপনার ইমেইল ক্যাম্পিয়ন এর সেচ্ছায় যুক্ত হয়েছে এবং যখন ওই সব ইউসারকে ইমেইল পাঠাবেন তখন সেটাকে ইমেইল স্পামিং বলা হয় না।

একটা রিসার্চ অনুযায়ী যারা দৈনিক ইমেইল পাঠান তাদের ইমেইল রিটার্ন কিন্তু খুব ভালো হয়ে থাকে, এবং আপনার কম্পেটিটর এখানে সেটাই মিস করে যায় প্রত্যেক বার সঙ্গে ৪৪% মানুষ এমন আছেন যারা ১ থেকে ৩ বার দৈনিক তাদরে ইমেল চেক করে থাকেন আমেরিকাতে।

৩. পরিস্কার ইমেইল লেখার বা পাঠানোর চেষ্টা করূন

যতই আপনি আপনার ইমেইল পরিষ্কার এবং সহজে বোঝা যায় এমন ইমেইল পাঠাবেন ততই আপনার ইমেইল মার্কেটিং রেস্পন্স ভালো আসবে, কারণ অনেক সময় আপনার যেটা দরকার আপনার ইউসার জানানো তাদের জন্য কি অফার আছে সেই ম্যাসেজটা না দিয়ে আপনি দুনিয়ার সমস্ত তথ্য দেন তাহলে ইউসার এমনি ইন্টারেস্ট হারাবেন আপনার ইমেইল পড়ার জন্য।

ইমেইল মার্কেটাররা সব থেকে বেশিই যেটি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন ওপেন রেট কিভাবে বাড়ানো যায় কিন্তু এটা বলেন না কিভাবে আপনি আপনার দর্শকের নজর কাড়বেন তাদের পড়তে বাধ্য করবেন শুধু মাত্র আপনার এই ইমেইল টেক্সট এর মাধ্যমে।

তাছাড়া আপনি জানেন এখন মোবাইল ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেশি তাই এটা মাথায় রাখবেন আপনার ইমেইল ৬০% দর্শক মোবাইল ব্যবহারকারী হতে পারেন তাই সেই রকমের ইমেইল পাঠান যেগুলি মানুষ সহজে একসেস করতে পারেন খুলে দেখতে পারেন মোবাইল ব্যবহার কারীর জন্য ইমেইল মার্কেটিং অপ্টিমাইজ করতে গেলে সহজ ছোটো ছোটো প্যারাগ্রাফ লিখুন বুলেট পয়েন্ট দিন বোল্ড ও আন্ডার লাইন দিন এই জিনিস গুলি মনে রাখবেন।

৪. একই মেইল দুটি ভিন্ন টাইটেল

হ্যাঁ, এটাই বলছিলাম যখন ইমেইল মার্কটিং করবেন দেখবেন ১০ জনের মধ্যে ৩ জন আপনার ইমেইল ওপেন করছেন আর ৭ জন ওপেন করছেন না তাই একই ইমেইল টেক্সট রাখুন কিন্তু চেষ্টা করেন বিভিন্ন টাইটেল ব্যাবহার করার।

ধরুন আপনি একটি ইমেইল ক্যাম্পেন লঞ্চ করেলন কিভাবে মোটা হওয়া যায় সর্বমোট ১০০০ জনকে আপনার ইমেইল পাঠালেন কিন্তু ওপেন রেট দেখলেন শুধুমাত্র ২০০ জন তাহলে কি  আপনি আপনার ক্যাম্পেটি রিজেক্ট কেবিন কোনো মতেই না তাই একই মেইলের কিছু ভিন্ন টাইটেলে ব্যবহার করে দেখুন যেটাকে বলা হয়ে থাকে ডাবল ওপেন স্ট্রাটেজি।
তাছাড়াও, প্রত্যেকটি ইমেইল দুই বার পাঠানোর আগে অনেক কিছু জিনিস আপনাকে মাথায় রাখতে হবে যেমন।

  • কখন ইমেইল পাঠাচ্ছেন সেটা নজর রাখুন সঙ্গে কোন সময় ইমেইল ওপেন রেট বেশিই সেটাও নজর দিন।
  • আগের এবং বর্তমান পাঠনো টাইটেলেটি মোডিফাই করুন।
  • প্রথম বার ইমেইল পাঠানোর পরেই আবার ইমেইল পাঠাবেন না চেষ্টা করুন ৫ থেকে ৬ দিন পর এটাকে পাঠান নতুন রূপ দিয়ে।

৫. সঠিক C-T-A বাটনের ব্যাবহার আপনার ইমেইল ক্যাম্পেইনে

C-T-A বাটন বা কল টু অ্যাকশন বাটন যেটা একটি  ইমেইল ক্যাম্পেইনের সমস্ত দিশাকে একদিক থেকে অন্য দিকে সফল ভাবে ঘুরিয়ে দিতে সক্ষম যদি আপনি জানেন কিভাবে এটাকে ব্যাবহার করতে হয় এবং কোন জায়গায় ব্যবহার করতে হয়।

আপনি জানেন আজেকের দিনে মানুষ খুব ব্যাস্ত তাই যতই মানুষ আপনার ইমেইল ইউজফুল হোক না কোনো যদি আপনি সঠিক জায়গায় C-T-A বাটন বা কল টু অ্যাকশন বাটন না দেন মানুষ আপনার ইমেইলে আকৃষ্ট হলেও তারা ফিরে আসবে।

আপনার ইমেইল ওপেন রেট যখনি ভালো হচ্ছে কিন্তু সেটার সঠিক ব্যবহার করতে পারছেন না কারণ অডিয়েন্স এত সহজে আপনাকে ATTENTION দিচ্ছেন সেটাকে ব্যাবহার করতে হবে কিভাবে।

যখনি কোনো ইমেইল ক্যাম্পেইন লঞ্চ করবেন তার আগে আপনাকে একটি সঠিক এবং বেসিক স্ট্রাকচার তৈরি করে নিতে হবে কোথায় কি ব্যাবহার করবেন কোথায় পয়েন্টস কি পয়েন্টস থাকবে এবং কত শব্দের আপনার ইমেইল লেখাটি হবে ইত্যাদি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button